অস্ট্রেলিয়ার নৌবাহিনীতে প্রথম হিজাবি ক্যাপ্টেন

অস্ট্রেলিয়ার নৌবাহিনীতে প্রথম হিজাবি নারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ক্যাপ্টেন মুনা সিন্দি। তিনি নৌবাহিনীর জ্যেষ্ঠ পদাধিকারী একজন মুসলিম প্রকৌশলী।

অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স কলেজের সেন্টার ফর ডিফেন্স এন্ড স্ট্রাট্যাজিক স্টাডিজ বিভাগের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

মাত্র তিন বছর বয়সে মুনা সপরিবারে মিশর থেকে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান। তাঁর পরিবার সিডনির মারুবরা শহরে বসবাস শুরু করে। ১৪ বছর বয়সে তাঁর বাবা মারা যান। তাঁকেসহ চার ভাই-বোনকে তাঁর মা একাই লালন-পালন করেন।

মুনা বলেন, আমার মা অত্যন্ত সাহসী ছিলেন। আমাদের সবাইকে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পড়িয়েছেন। তা আমাদের জন্য মোটেও সহজতর ছিল না। অস্ট্রেলিয়ায় তখন আমাদের কোনো আত্মীয়-স্বজন ছিল না। আমরা অনেকটা বিচ্ছিন্ন ছিলাম।

১৯৮৯ সালে মুনা নৌবাহিনীতে প্রকৌশলী হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৪ সালে আমি হজ পালনের সুযোগ লাভ করি। জীবনে একবারের জন্য হলেও পবিত্র হজ পালন করা সব মুসলিমের স্বপ্ন থাকে।

হজ থেকে ফেরার পর মুনা ব্যক্তিজীবনে ইসলামে অনুশাসন পুরোপুরি পালনের চেষ্টা করেন। এ ভাবনা থেকেই তিনি হিজাব পরিধান শুরু করেন। তিনি বলেন, হজ থেকে ফেরার পর আমি হিজাব পরতে থাকি। এরপর থেকে কখনো আমি জনসম্মুখে হিজাব পরা ছেড়ে দেইনি।

২০১৫ সালে নৌবাহনী প্রধানের ইসলামী সংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে তিনি বিশেষ সম্মাননা লাভ করেন। একই বছর তিনি নৌবাহিনী ও মুসলিমদের মধ্যে সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করায় টেলাসটারা বিজনেস উইম্যানের বর্ষসেরা নারী নির্বাচিত হন।