ফেসবুকে মসজিদ নিয়ে কু’টুক্তি: চুয়াডাঙ্গায় আ.লীগ নেতার ছেলে আট’ক

চুয়াডাঙ্গায় ফেসবুকে মসজিদ নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট করায় সদর মানিক খান নামের এক ব্যক্তিকে আট’ক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে তাকে আট’ক করা হয়। আট’ক মানিক খান চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার দর্শনা থানাধীন তিতুদহ ইউনিয়নের গিরিশনগর বাজার পাড়ার আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে।

জানা যায়, গতকাল দুপুরের দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের গিরিশনগর বাজারপাড়ার আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে আলোচিত কথিত সাংবাদিক নামে পরিচিত মানিক খান তার ফেসবুক আইডি থেকে একটি ইসলামবিরোধী বক্তব্য পোস্ট করেন।

বক্তব্যটি হলো- ‘যেখানে সেখানে মসজিদ না তৈরি করে কিছু খেলাধুলা করার মাঠ বানালে শিশু-কিশোরদের সুস্থ মানসিক বিকাশ ঘটত। এত মসজিদ দিয়ে সমাজের মানবিক বিপর্যয় রোধ করা যাচ্ছে না। কারণ মসজিদসহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসমূহ, খেলার মাঠ এবং সাংস্কৃতিক ক্লাব-এই সবকিছুরই প্রয়োজন আছে এই সমাজে।

কিন্তু শুধু মসজিদ বানানোর কারণে সমাজটা এত বিষাক্ত।’ এ ধরনের বক্তব্য পোস্ট করার পরপরই এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইতে থাকে।

পরে তিতুদহ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই শেখ রকিবুল ইসলাম বিষয়টি জানতে পেরে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে গিরিশনগর বাজার থেকে তাকে আটক করেন। পরে ক্যাম্প পুলিশ দর্শনা থানা পুলিশের কাছে মানিক খানকে থানা হেফাজতে পাঠায়।

এ বিষয়ে তিতুদাহ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শেখ রকিবুল ইসলাম বলেন, ইসলামবিরোধী বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করায় ধর্মের প্রতি অবমাননা হওয়ায় গ্রামের মানুষের মধ্যে বিতর্কিত মনোভাব সৃষ্টি হয়।

যে কারণে তাকে আটক করে থানা হাজতে পাঠানো হয়েছে। দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান কাজল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘এ ঘটনায় মানিক খান নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।’