ভারতে হিন্দুত্ববাদের নামে মুসলমানদের ধ্বং’স করছে মোদি: ডা. জাফরুল্লাহ

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদ। শুক্রবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘ভারতীয় আগ্রাসন বিরোধী’ এ বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।

সমাবেশে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশের পর প্রেস ক্লাব থেকে শাহবাগ এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে সংগঠনটি। সমাবেশে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেন,

‘সাম্প্রদায়িক মোদিকে এনে জন্মশতবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অপমান করবেন না। দেশের সকল মানুষকে অপমান করবেন না। জাতীয় স্বার্থে এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘মোদি বাংলাদেশের বন্ধু নয়। ভারতেও সে হিন্দুত্ববাদের নামে মুসলমানদের ধ্বং’স করছে। সে নিজের ধর্মের মানুষকেও নানান প্রতিবন্ধকতায় ফেলছে।’

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, ‘যে নরেন্দ্র মোদিকে কসাই নামে আখ্যায়িত করা হয়, কোনো দেশ তাকে সমর্থন করে না। তাকে শুধু বাংলাদেশের সরকার গুরুত্ব দেয়।

এ উগ্র হিন্দুত্ববাদী সাম্প্রদায়িক মোদিকে বাংলাদেশে এনে দেশের মুক্তিযু’দ্ধের সঙ্গে তামাশা করবেন না।’ নুর আরও বলেন, ‘ভারতের যে কেউ আসুক, আমরা স্বাগত জানাব। কিন্তু মোদিকে এনে বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক চেতনায় অঘাত করতে দেব না।

মোদি শেখ হাসিনার বন্ধু, বাংলাদেশের নয়। শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ তার গোলামি করে না।’ তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র নেই। বিনাভোটে ফ্যাসিবাদী সরকার শাষন করছে। এই জি’ম্মিদশা থেকে মুক্তির জন্য আপনাদের সংগ্রাম করতে হবে। এ সরকারের পতনের আন্দোলন করতে হবে।’

এ সময় বাংলাদেশ যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আতাউল্লাহ আতা বলেন, ‘এ প্রতিবাদ মোদির আগমনের বিরুদ্ধে, ভারতীয় আগ্রাসনের বিরু’দ্ধে। যতদিন আগ্রাসন বন্ধ না হবে, ততদিন প্রতিবাদ চলবে। আর মোদিকে বাংলাদেশে আসতে দেয়া হবে না। মোদি দেশে আসলে আমরা কঠোর কর্মসূচি দেব।’