মন্ত্রীর দামি ঘড়ি কেন রাষ্ট্রীয় তোশাখানায় জমা হলো না : টিআইবি

0

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর দামি ঘড়ির আলোচিত সংগ্রহের ব্যাখ্যাকে প্রশ্নবিদ্ধ ও অপর্যাপ্ত বিবেচনা করে এসব সামগ্রী কেন যথাসময়ে রাষ্ট্রীয় তোশাখানায় জমা দেয়া হলো না তা দেশবাসীকে জানানোর আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

একই সঙ্গে সংগৃহীত এ ধরনের উপহার কী ঘড়িতেই সীমাবদ্ধ, এরূপ সংগ্রহ কী শুধু সড়ক ও সেতুমন্ত্রীরই না-কি এর স্বরূপ ও বিস্তৃতি আরও ব্যাপক ও গভীর তা খতিয়ে দেখে দেশবাসীকে জানানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) প্রকাশিত এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদকের বিলাস বহুল ঘড়ির সংগ্রহ সম্পর্কে গতকাল (৯ জানুয়ারি) সচিবালয়ে সংবাদকর্মীদের প্রশ্নের উত্তরে যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তা প্রশ্নবিদ্ধ ও পর্যাপ্ত নয় বরং আরও গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উদ্রেক করেছে।’

যেভাবেই তিনি উপহারসমূহ পেয়ে থাকুন না কেন ২০১২ সালের জুনে হালনাগাদকৃত তোশাখানা বিধি ১৯৭৪ অনুযায়ী উপহারসমূহ যথাসময়ে তোশাখানায় জমা দেয়া হলো না কেন। জমা না দেবার সিদ্ধান্ত যেহেতু তিনি নিয়েছেন সেহেতু সংশ্লিষ্ট ধারা অনুসরণ করে উপহারপ্রাপ্ত বস্তুর প্রকৃত মূল্য অনুযায়ী অর্থ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়া হয়েছে কী-না? এ ধরনের প্রশ্নের সুনির্দিষ্ট উত্তর জানার অধিকার জনগণের রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শতবর্ষ উদ্যাপন কার্যক্রমের শুরুর লগ্নে স্মরণ করা অযৌক্তিক হবে না, যে তোশাখানা বিধি জাতির পিতার নেতৃত্বাধীন সরকার কর্তৃক প্রণীত হয়েছিল, বর্তমান সরকারের আমলে হালনাগাদ হয়েছে, আর নভেম্বর ২০১৮ সালে তোশাখানা জাদুঘর উদ্বোধন করা হয়েছিল।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.