ফেডারেশন কাপের শিরোপা জয় করল বসুন্ধরা কিংস

0

রহমতগঞ্জ মুসলিম এন্ড ফ্রেন্ডস সোসাইটিকে হারিয়ে টিভিএস ফেডারেশন কাপের শিরোপা জয় করেছে বসুন্ধরা কিংস। রোববার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে পুরনো ঢাকার দলটিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে প্রিমিয়ার লীগের চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচ শুরুর পঞ্চম মিনিটেই জোড়ালো এক আক্রমন রচনা করে বসুন্ধরা। বিপজ্জনক স্থান থেকে দলের কিরগিজ মিডফিল্ডার বকতিয়ার ডুইসেম্বকভ হেড নিলে অল্পের জন্য ক্রস বারের উপর দিয়ে মাঠ পেরিয়ে যায় বল।

১৮মিনিটে প্রতি আক্রমনে যায় রহমতগঞ্জ। এ সময় স্ট্রাইকার মমদু বাহ চোট্ট একটি পাসে বল আগুয়ান সোহেল মিয়াকে বাড়িয়ে দিলে চলন্ত বলেই গোলপোস্টের উদ্দেশ্যে টোকা দেন তিনি। বলটি জালে প্রবেশের মুহূর্তেই বসুন্ধরার গোল রক্ষক জিকো এগিয়ে এসে সেটিকে ফিস্ট করে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন।

বিরতির আগ মুহূর্তে গোল খড়া দূর করেন কোস্টারিকা থেকে উড়িয়ে আনা বসুন্ধরার ফরোয়ার্ড ড্যানিয়েল কলিন্দ্রেস সোলেরা। ৪১ মিনিটে বিশ্বনাথের ক্রস থেকে ডি বক্সের বিপজ্জনক এলাকায় বল পেয়েই দর্শনীয় হেডে রহমতগঞ্জের জালে জড়ান তিনি। বলটি প্রতিহত করার কোন সুযোগই পাননি গোলরক্ষক রাসেল।

বিরতির পর গোল পরিশোধ করে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফিরে পুরোনো ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাব রহমতগঞ্জ। ৬৩ মিনিটে বাঁ প্রান্ত দিয়ে কর্নার থেকে শাহেদুল আলমের ক্রসের বল বসুন্ধরার জালে জড়িয়ে দেন গাম্বিয়া থেকে আসা ফরোয়ার্ড মমদু বাহ।

তবে ৭৭ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করে বসুন্ধরাকে জয় এনে দেন ড্যানিয়েল। ডি বক্সেই কামারার আকস্মিক ব্যাক পাসের বল রহমতগঞ্জের গোলরক্ষক ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হলে বলটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অত্যন্ত ঠান্ডা মাথায় তাদের জালে জড়িয়ে দেন ড্যানিয়েল।

খেলা শেষে অসাধারণ দক্ষতা প্রদর্শনের জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার লাভ করেন বসুন্ধরার ফুটবল তারকা বিশ্বনাথ ঘোষ। টুর্নামেন্টের ফেয়ার প্লে ট্রফি লাভ করেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।

এর আগে সেমি-ফাইনালে নবাগত বাংলাদেশ পুলিশকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল বসুন্ধরা। অপরদিকে পুরনো ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাব রহমতগঞ্জ সেমি-ফাইনালে টাইব্রেকারে ঢাকা আবাহনী লিমিটেডকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট লাভ করে। স্বাধীনতার পর এটিই ছিল দেশের প্রাচীন ক্লাব রহমতগঞ্জের বড় কোন আসরে সেরা সফলতা। এর আগে মোহামেডানকে হারিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছিল ক্লাবটি। সূত্র : বাসস

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.