জাতীয় দলের ক্রিকেটার ইমরুল কায়েস বাবা মারা গেছেন

জাতীয় দলের ক্রিকেটার ইমরুল কায়েস বাবা হারিয়েছেন। গত ২৩ মার্চ মেহেরপুরে ইমরুল কায়েসের বাবা বানি আমিন বিশ্বাস সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। তাৎক্ষণিক তাকে ঢাকায় এনে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন ইমরুল।

প্রায় এক মাস মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করেছিলেন তিনি। রোববার সন্ধ্যায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। রাত ৯ টায় আসে দুঃসংবাদ। পৃথিবীর সকল মায়া ত্যাগ করে বানি আমিন বিশ্বাস পাড়ি জমিয়েছেন পরপারে (ইন্না লিল্লাহে…রাজিউন) । তাঁর বয়স হয়েছিল ৬২ বছর।

মেহেরপুরের-কাথুলী সড়কে দূর্ঘটনায় আহত হন ইমরুলের বাবা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একটি শ্যালো ইঞ্জিনচালিত গাড়ি ইমরুলের বাবার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি রাস্তার ওপর ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছিল, তাঁর বাম পা ভেঙে গেছে। কানে মারাত্মক চোট পেয়েছেন। সেদিন দুপুরে মুমূর্ষু অবস্থায় হেলিকপ্টারে ঢাকা নিয়ে আসা তাকে। ঢাকায় তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি খুব একটা উন্নতি হয়নি। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) রাখা হয়েছিল দীর্ঘদিন। আজ সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তাঁর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি), ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)। সেই সাথে তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছে।

জানা গেছে, মরদেহ নিয়ে ইমরুল মেহেরপুরের পথে। গ্রামের বাড়িতে জানাযা ও দাফন সম্পন্ন হবে।

পবিত্র রমজানে মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি দিল পাকিস্তান

সামাজিক দূরত্ব ও লকডাউন করে যেখানে করোনা সংক্রমণ রোখার চেষ্টা চলছে সেখানে একপ্রকার উল্টোপথেই হাঁটার সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান। সংক্রমণ রুখতে যেখানে দুনিয়ার বহু মসজিদে নামাজ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সেখানে রমজানের নামাজ জামায়েতে পড়ার অনুমতি দিল ইমরান খান সরকার।

গতকাল শনিবার পাকিস্তানের ধর্মীয় নেতা, বিরোধী দলের সঙ্গে বৈঠকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, রমজানের বিশেষ প্রার্থনা জমায়েত করেই হবে।

আলভি বলেন, এনিয়ে ২০ দফার একটি পরিকল্পনা করা হয়েছে। ধর্মীয় ও বিরোধী নেতাদের সঙ্গে কথা বলেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ৫০ বছরে বেশি বয়সের ব্যক্তিদের ওই জামায়েতে যোগ দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না।

এদিকে, পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে অবশ্য জানানো হয়েছে, ধর্মীয় নেতারা রমজানের প্রার্থনার ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব বাজায় রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। পাশাপাশি সরকারের সব গাইডলাইন মেনে চলার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন। পাকিস্তানের উলেমা কাউন্সিলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রমজানে তারাবির নামাজে সরকারের সব নির্দেশিকা মেনে চলা হবে।

ইসলাম আমার জীবনে শান্তি এনে দিয়েছে : বিশ্বকাপ জয়ী পগবা

ক’দিন আগেই হজ্জ্ব পালন করে আসছেন পল পগবা। বর্তমানে ইসলামিক কর্মকান্ডে খুবই সক্রিয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এ মিডফিল্ডার। আর তাই ইসলাম নিয়ে মানুষের ভুল ধারণা ফুটিয়ে তুলে নিজ ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হওয়া ব্যাখ্যা করেছেন এ তারকা খেলোয়াড়। ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য ইনডিপেনডেন্টকে পগবা জানান, ‘সবাই যেভাবে দেখছে ইসলাম সে রকম না। আমরা গণমাধ্যমে যা শুনি তা ভিন্ন কিছু। ইসলাম খুবই সুন্দর।

ইসলাম জীবন সম্পর্কে আমার ধারণা বদলে দিয়েছে। আমার ভেতরে শান্তি এনে দিয়েছে। এটা আমার জীবনে ভালো একটা পরিবর্তন এনে দিয়েছে।’ ফরাসি এই ফুটবলার বলেন, ‘আমার অনেক বন্ধুবান্ধব আছে যারা মুসলমান। আমরা সব সময় কথা বলি। আমি নিজেকেও প্রশ্ন করি। আমি আমার বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে একবার নামাজ পড়ি। তারপর বুঝতে পারি অন্য রকম লাগছে।

আমার খুব ভালো লাগছিল। তারপর থেকে আমি শুরু করি। নামাজ ইসলামের মূল স্তম্ভ। আপনি ক্ষমা চাইছেন, সবার জন্য দোয়া করছেন।’ পগবা আরো বলেন, ‘ইসলাম আমার চোখ খুলে দিয়েছে। আমাকে ভালো মানুষে পরিণত করেছে। ইসলাম মানবতাকে শ্রদ্ধা করে

বাংলাদেশকে বিনামূল্যে করোনার ওষুধ দেবে জাপান

করোনা মহামা’রির এই দুঃ’সময়ে জাপানের ফুজিফিল্ম তয়োমা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের উৎপাদন করা এভিগান রোগটি প্র’তিরোধে আশার আলো যোগাচ্ছে। তবে করোনাভাইরাসের বি’রুদ্ধে ব্যবহার করার জন্য জাপানের এই ওষুধটি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এখনও শেষ হয়নি। ওষুধটি প্রাথমিক পর্যায়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে করোনায় আক্রা’ন্ত বাংলাদেশিরা সীমিত আকারে বিনামূল্যে এই ওষুধটি পাবে বলে জানিয়েছে জাপান।

জাপানের টোকিও’তে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনের কাউন্সেলর এবং দূতালয় প্রধান (এইচওসি) ড. জিয়াউল আবেদিন শনিবার (১১ এপ্রিল) বলেন, জাপান সরকার বাংলাদেশকে জানিয়েছে যে, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সীমিত আকারে বিনামূল্যে এভিগান দেবে তারা।

ক‚টনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, মার্চের ২০ তারিখে জাপান সরকারকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, করোনা প্র’তিরোধে জাপানের উৎপাদিত এভিগান ওষুধ দিয়ে বাংলাদেশকে সহায়তা করা হোক। জবাবে জাপান সরকার জানায় যে, আপাতত সীমিত আকারে (সর্বনি¤œ ২০টি থেকে সর্বোচ্চ ১০০টি) বিনামূল্যে এই ওষুধ বাংলাদেশকে দেওয়া হবে।

টোকিও’র একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ওষুধটির কার্যকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতি’ক্রিয়াসহ সার্বিক বিষয়ে এখনও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শেষে কম-বেশি ৫০টি দেশকে সীমিত আকারে এই ওষুধ দেবে জাপান। কমবেশি ৫০টি দেশে করোনা আক্রা’ন্তের ঘটনায় এভিগান ব্যবহারের ফলাফলগুলো একত্র করে ওষুধটির কার্যকারিতা যাচাই করা হবে।

এরপর যদি দেখা যায় যে, করোনার আগ্রা’সী আ’ক্র’মণ ঠে’কাতে এভিগান কার্যকর, তখনই ওষুধটি প্রচুর পরিমাণে উৎপাদন করবে জাপান। তবে সেটা কখনই বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করা হবে না বলে গত মার্চে জাপান সরকার ষ্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে। তারা বলেছে যে, আক্রা’ন্ত দেশগুলোকে এই ওষুধ বিনামূল্যে দিয়ে সহায়তা করা হবে।

দেশি-বিদেশি একাধিক জার্নাল ঘেঁটে দেখা গেছে, করোনা প্রতিরো’ধে এখনও কার্যকর প্রমাণিত কোনো টিকা বা ওষুধ আবিষ্কার হয়নি। তবে ইনফ্লুয়েঞ্জা বা ফ্লুর চিকিৎসায় ব্যবহৃত এভিগান, আরবিডল, ইন্টারফেরন আলফা টুবি, ফেভিপিরাভির, লোপিনাভির, ক্লোরোনকুইনিন, রেমডেসিভিরসহ প্রায় ডজনখানক ওষুধ করোনা প্র’তিরো’ধে পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হয়। যার মধ্যে এভিগান এখন পর্যন্ত করোনা বিরু’দ্ধে যু’দ্ধে এগিয়ে থাকার আশা জোগাচ্ছে।

জাপানের ফুজিফিল্ম তয়োমা ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড ২০১৪ সাল থেকে ইনফ্লুঞ্জো চিকিৎসার জন্য এভিগান উৎপাদন করছে। গত ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনা আ’ক্র’মণ করার পর চীন সরকার গত মার্চে জানায় যে, জাপানের এভিগান ওষুধটি করোনা প্র’তিরোধে ভালো কাজ করছে।

চীনের কাছ থেকে এমন তথ্য পাওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় জাপানের স্বাস্থ্য, শ্রম ও কল্যাণমন্ত্রী কাতসুনোবু কাতো বলেন, করোনার বিরু’দ্ধে এভিগান কতোটুকু কার্যকর তা পরীক্ষা করে দেখবে জাপান।’ জাপানের মন্ত্রীর ওই ঘোষণার পর থেকে এখন পর্যন্ত এভিগান নিয়ে পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে জাপান। তথ্য সূত্রঃ-আমাদেরসময়.কম

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.