ট্রাম্পের আগেই তার ইহুদীবাদি প্রস্তাবের মৃত্যু ঘটবে : আয়াতুল্লাহ খোমেনি

0

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ি বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আগেই কথিত ‘ডিল অব দ্যা সেঞ্চুরি’র মৃত্যু ঘটবে।

তিনি আজ (বুধবার) বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার হাজার হাজার মানুষের এক সমাবেশে এ কথা বলেন। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, এই পরিকল্পনা মোকাবেলার পথ হচ্ছে ফিলিস্তিনি জাতি ও সংগঠনগুলোর সাহসিকতাপূর্ণ প্রতিরোধ ও জিহাদ এবং মুসলিম বিশ্বের সমর্থন।

মার্কিন গুণ্ডা ও দস্যুদের মাধ্যমে কথিত ‘ডিল অব দ্যা সেঞ্চুরি’ প্রকাশের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, মার্কিনীরা ফিলিস্তিন-বিরোধী এই পরিকল্পনার একটি বড় নাম দিয়ে এখন এটা ভাবছে যে তাদের পরিকল্পনা সফল হবে। কিন্তু বাস্তবে তারা বোকামিপূর্ণ ও শয়তানি কাজ করেছে এবং ঘটনার শুরুতেই তারা ক্ষতির শিকার হয়েছে।

ট্রাম্পের পরিকল্পনাকে আমেরিকার প্রতারণার প্রকাশ্য উদাহরণ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মার্কিন সরকার ইহুদিবাদীদের সঙ্গে এমন কিছু নিয়ে লেনদেন করছে যা তাদের নিজেদের নয়।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, নিজ জাতির কাছেও অপমানিত ও মূল্যহীন কয়েক জন বিশ্বাসঘাতক আরব নেতার হাততালিতে কোনো লাভ নেই। সাম্রাজ্যবাদী শক্তি সব সময় ফিলিস্তিন ইস্যুকে মানুষের মন থেকে মুছে দেওয়ার চেষ্টা করছে, তবে তাদের এই কাজের ফলে উল্টো ফিলিস্তিন ইস্যুটি আবারও জীবন্ত হয়ে উঠেছে, বিশ্বের সর্বত্র ফিলিস্তিনিদের নাম ও অসহায়ত্ব এখন সবার মুখে মুখে শোনা যাচ্ছে।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, সাম্রাজ্যবাদীরা অস্ত্র ও অর্থের ওপর নির্ভর করে তাদের পরিকল্পনা এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। কিন্তু আমার বিশ্বাস ফিলিস্তিনের সশস্ত্র সংগঠনগুলো এর মোকাবেলা করবে এবং প্রতিরোধ সংগ্রাম অব্যাহত রাখবে।

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান এসব সংগঠনের প্রতি সমর্থন ও সহযোগিতাকে নিজের দায়িত্ব বলে মনে করে। এ কারণে সম্ভাব্য সব উপায়ে তাদেরকে সহযোগিতা করা হবে এবং এটা ইরানের ইসলামি সরকার ব্যবস্থা ও জনগণেরই দাবি।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ফিলিস্তিন সংকটের সমাধান ও সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠার একমাত্র উপায় হলো মুসলমান, খ্রিস্টান ও ইহুদিসহ সব ফিলিস্তিনির অংশগ্রহণে গণভোট আয়োজন করা এবং তাদের রায়ের ভিত্তিতেই সরকার ও রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, ইনশাআল্লাহ এই লক্ষ্য বাস্তবায়িত হবে। আপনারা তরুণরা সেই দিন দেখতে পাবেন এবং আল্লাহর ইচ্ছায় আপনারা মসজিদুল আকসায় নামাজ পড়বেন। # পার্সটুডে

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.