‘সাম্রাজ্যবাদী চরিত্রের দিক দিয়ে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানদের মধ্যে পার্থক্য নেই’

ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি বলেছেন, জুলুম ও সাম্রাজ্যবাদী চরিত্রের দিক দিয়ে আমেরিকার ডেমোক্র্যাট ও রিপাবিলানদের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। তিনি আরো বলেছেন, বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদী শক্তির মোকাবিলা করার একমাত্র উপায় হচ্ছে ইরানকে শক্তিশালী করা।

ইব্রাহিম রায়িসি রোববার ‘ছাত্র দিবস’ উপলক্ষে তেহরানে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে একথা বলেন।

আমেরিকার সাম্প্রতিক প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন বিজয়ী হওয়ার ফলে তেহরানের প্রতি ওয়াশিংটের বিদ্বেষী আচরণে নমনীয়তা আসবে বলে কোনো কোনো মহল যখন জোর গুঞ্জন শুরু করেছে তখন একথা বললেন ইব্রাহিম রায়িসি।

তিনি বলেন, অর্ধ শতাব্দি আগের তুলনায় আমেরিকা এখন অনেক বেশি দুর্বল এবং ইরান এখন অনেক বেশি শক্তিশালী।

ইরানের বিচারবিভাগের প্রধান বলেন, আমেরিকা পাশ্চাত্যে এত বেশি অপমানিত হয়েছে যা কারো কাছে অজানা নয়। দেশটি অদূর ভবিষ্যতে আরো বেশি অপমানিত হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ইরান অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে বেশি শক্তিমত্তার অধিকারী উল্লেখ করে রায়িসি বলেন, একমাত্র ইরানের এই শক্তিমত্তাই আমেরিকাকে হতাশ করে দিয়েছে।

১৯৫৩ সালের ৬ ডিসেম্বর তৎকালীন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনের ইরান সফরের প্রতিবাদে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা প্রতিবাদ বিক্ষোভ করেন।

ইরানের তৎকালীন শাহ সরকারের অনুগত পুলিশ বাহিনী প্রতিবাদী ছাত্রদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালায়। এ ঘটনায় তিন ছাত্র শহীদ ও শত শত ছাত্র আহত হন। সেই ঘটনার স্মরণে ইরানে প্রতি বছর ৬ ডিসেম্বর ‘ছাত্র দিবস’ পালিত হয়।